সাংবাদিককে দেখে নেওয়ার হুমকি ইউপি চেয়ারম্যানের

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ উপজেলার এক ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে এক সাংবাদিককে দেখে নেওয়ার হুমকি দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী সাংবাদিক তসলিম আহমেদ আশুগঞ্জ থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন। তিনি বেসরকারি স্যাটেলাইট টেলিভিশন চ্যানেল মোহনা টিভির আশুগঞ্জ প্রতিনিধি।
রবিবার (২৮ জুন) রাতে করা ওই সাধারণ ডায়েরি সূত্রে জানা যায়, গত ২৪ জুন বেলা ১১টার দিকে আশুগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশনের পাশে রেলওয়ের পরিত্যক্ত বালু নিয়ে যাওয়ার সময় সাংবাদিক তসলিম ভিডিওচিত্র ধারণ করেন। এর কিছুক্ষণ পর উপজেলার চরচারতলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জিয়াউদ্দিন খন্দকার তার মুঠোফোন থেকে তসলিমকে কল করে দেখে নেওয়ার হুমকি দেন। পাশাপাশি চেয়ারম্যানের অনুসারীরাও নানাভাবে তসলিমকে হুমকি দিয়ে যাচ্ছেন। এই ঘটনায় পেশাগত দায়িত্ব পালনে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন তসলিম আহমেদ।

সাংবাদিক তসলিম আহমেদ বলেন, ট্রাকে করে চেয়ারম্যান জিয়াউদ্দিন খন্দকারের লোকজন রেলওয়ের বালু নিয়ে যাচ্ছিল। আমি ট্রাকের চালক ও সহযোগীর বক্তব্য ভিডিও ধারণ করেছিলাম। কিছুক্ষণ পরই চেয়ারম্যান জিয়া উদ্দিন খন্দকার আমাকে ফোন করে হুমকি দিয়ে বলেন ‘তোর সাংবাদিকতা ছুটায় দিমো’। এই ঘটনায় আমি ও আমার পরিবার নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।

তবে ইউপি চেয়ারম্যান জিয়াউদ্দিন খন্দকার সাংবাদিক তসলিমকে ফোন করলেও হুমকি দেওয়ার বিষয়টি সঠিক নয় বলে দাবি করেছেন।

এই ব্যাপারে আশুগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাবেদ মাহমুদ বলেন, সাংবাদিক তসলিম আহমেদ আমাদের কছে একটি কল রেকর্ড দিয়েছেন। সেটি শুনে প্রাথমিক ভাবে ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে। আমরা এখন সাধারণ ডায়েরিটি তদন্তের করার জন্য আদালতের কাছে অনুমতি চাইব। পরবর্তীতে ঘটনাটি তদন্ত করে আদালতে প্রতিবেদন জমা দেওয়া হবে।

Related posts

Facebook Comments

Default Comments

Leave a Comment