বানোয়াট আখ্যায়িত করে সংবাদের প্রতিবাদ জানিয়েছে সেলিম

গত মঙ্গলবার (১৫.৯.২০২০ইং) ‘দূর্জয় বাংলা’ নামের একটি অনলাইন নিউজ পোর্টালে ‘ব্রাহ্মণবাড়িয়া উপজেলার পিআইও’র অফিস সহকারীর হাতে আলাদিনের চেরাগ’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। এর প্রতিবাদ জানিয়েছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয়ের অফিস সহকারী কাম মুদ্রাক্ষরিক নূর মোহাম্মদ সেলিম। তিনি সংবাদটিকে সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট ও উদ্দেশ্য প্রনোদিত ভাবে মানসম্মানহানি করার জন্য অপচেষ্টা করা হয়েছে বলে এর প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

তিনি প্রতিবাদ লিপিতে বলেন, প্রকাশিত ওই সংবাদে বলা হয়েছে আমার পিতা একজন মুদিমালের ব্যবসায়ী ছিলেন। প্রকৃত আমার পিতা মরহুম ছাদেকুর রহমান একজন সফল কৃষক ছিলেন। সংবাদে আরও উল্লেখ করা হয়, চাকরির সুবাদে আমি দীর্ঘদিন যাবত নিজ জেলায় কর্মরত থেকে অনৈতিক সুবিধা গ্রহণ করেছি এবং কোটি টাকা খরচ করে শহরে ৫তলা বাড়ি নির্মাণ করেছি। কিন্তু আমি চাকুরীতে যে পদে আছি সেই পদে কোন কর্মস্থলে কাজ করবো, তা আমার উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ নির্ধারণ করে থাকেন। শহরের যে বাড়ির কথা সংবাদে উল্লেখ করা হয়েছে তা দুই শতাংশ জায়গায় নির্মাণ করতে প্রায় ৫০লক্ষ টাকা ব্যয় হয়েছে। হাউজ বিল্ডিং ফাইন্যান্স কর্পোরেশন থেকে ২০লক্ষ টাকা, ব্র্যাক সমিতি থেকে ১১ লক্ষ টাকা ও আমার মেয়ের জামাতাসহ অন্যান্য আত্মীয়স্বজন থেকে লোন নিয়ে এই বাড়ি নির্মাণ করা হয়েছে। যা বর্তমানে বাড়ি ভাড়া থেকে অর্থ নেওয়া প্রতিষ্ঠান ও আত্মীয় স্বজনদের পরিশোধ করে চলিতেছি।

প্রকাশিত সংবাদে আমি ধান ও চাল বিক্রয় করে অর্থের মালিক হয়েছি বলে উল্লেখ্য করা হয়, যা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও উদ্দেশ্য প্রনোদিত। এছাড়াও সংবাদে আমাকে পীর হিসেবে টাকা হাদিয়া নেওয়া কথা বলা হয়েছে। কিন্তু আমি একজন সাধারণ ধর্মপরায়ণ মানুষ, পীর হওয়ার মতো যোগ্যতা অর্জন করতে পারি নাই।

অতএব, আমাকে ব্যক্তি জীবনে মানসিক হয়রানী এবং মানসম্মানহানি করতে উদ্দেশ্য প্রনোদিত মিথ্যা ও বানোয়াট এই সংবাদের আমি তীব্র প্রতিবাদ জানাই।

Related posts

Facebook Comments

Default Comments

Leave a Comment