সরাইলে ফের দাঙ্গার আশঙ্কা

সরাইল প্রতিনিধি:


ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সরাইল উপজেলার উত্তর সীমান্ত ইউনিয়ন অরুয়াইল আর পাকশিমুল, বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকেই এই এলাকাটি দাঙ্গা মুক্ত করা হয় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অক্লান্ত পরিশ্রমের মাধ্যমে। দীর্ঘদিন যাবত এই এলাকাগুলো শান্তি থাকলেও হঠাৎ শুরু হয়ে গেল কী-বর্বরতার যুগের সেই দাঙ্গা? এমনটিই ভাবছেন এই এলাকার সুশীলসমাজ।

গত শুক্রবার (১৫ জানুয়ারি) সন্ধ্যার পর অরুয়াইল বাজার এলাকায় ‘জুনাইদ রেফ্রিজারেটর এন্ড ইলেকট্রনিক’-এর স্বত্বাধিকারী এবং সরাইল উপজেলার পাকশিমুল ইউনিয়নের ভূঁইশ্বর গ্রামের আতিকুল রহমানের ছেলে জুনাইদ মিয়াকে মারধর করে দোকানে জোরপূর্বক তালা দেয়ার অভিযোগ উঠেছে অরুয়াইল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি আবু তালেব মিয়ার বিরুদ্ধে।

জুনাইদ মিয়া জানান শুক্রবার সন্ধ্যায় তারা অরুয়াইল বাজারে আওয়ামী লীগ সভাপতি আবু তালেব মিয়ার অফিসে গোপন মিটিং করে এসে আমার দোকানে হামলা চালায়। এসময় আওয়ামী লীগ সভাপতি আবু তালেব মিয়ার নির্দেশে যুবলীগ নেতা বোরহান, নোয়াব মিয়া, মাসুক মেম্বার, রফিক মেম্বার সহ কয়েকজন আমাকে মারধর করেন। তখন আমাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসলে দোকানের ম্যানেজার সহ আমার ভগ্নিপতিকে মারতে থাকে ।

তার পর থেকেই এই এলাকায় শুরু হয়ে যায় আতংক জুনাইদ মিয়ার সর্মথনে তার গ্রামবাসী সিএনজি আটক করে ধামাউরা ও রাণীদিয়া গ্রামের কয়েকজনকে আটক করে মারধর ও গাড়ী ভাংচুর করে।

এ নিয়ে দুই এলাকার মানুষের মাঝে সংঘর্ষের আশঙ্কায় সরাইল থানার পুলিশ  এলাকায় শান্তি শৃঙ্খলার স্বার্থে তাৎক্ষণিক অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করে।

পরে বিষয়টি মিমাংসা করতে গতকাল (রোববার) বিকেলে উপজেলা পরিষদে দু’পক্ষের লোকজনদের ডেকে এক সালিশ সভা করা হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন সরাইল উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরিফুল হক মৃদুল, সরাইল সার্কেল-এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. আনিছুর রহমান, সরাইল থানার ওসি (তদন্ত) শফিকুল ইসলাম, অরুয়াইল ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া, পাকশিমুল ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম, অরুয়াইল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও অরুয়াইল বাজার কমিটির সাধারণ সম্পাদক হাজী আবু তালেব, অরুয়াইল ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক বোরহান উদ্দিন সহ দুই ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধি ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ অনেকে। সালিশে দু’পক্ষের আলোচনা শুনে ইউএনও এবং পুলিশের সার্কেল অফিসার বিরোধ নিষ্পত্তি করে দু’পক্ষের লোকজনদের মিলিয়ে দেন। রায়ে দু-পক্ষই সন্তোষ প্রকাশ করেন।

সন্ধ্যায় দু’পক্ষের লোকজন সালিশ সভা থেকে ফেরার পথে প্রশাসনপাড়ায় ডাক বাংলোর সামনে হঠাৎ  কিছু লোক যুবলীগ নেতা বোরহান উদ্দিনের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। তারা যুবলীগ নেতা বোরহান উদ্দিনকে এলোপাতাড়ি মারধর শুরু করে। এসময়ে মুখলেছুর রহমান ও রফিক মেম্বার এগিয়ে এসে যুবলীগ নেতা বোরহানকে রক্ষা করতে গেলে হামলাকারীরা তাদেরকেও মারধর করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এলে তারা পালিয়ে যায়।

তারপর থেকেই অরুয়াইল বাজার ও ভূইশ্বর বাজারে আবারো ছড়িয়ে পড়েছে এই ঝগড়া, এলাকাবাসীর আশঙ্কা এই দাঙ্গা ছড়িয়ে পড়তে পারে ইউনিয়ন ভিত্তিক ।

সরাইল সার্কেল-এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. আনিছুর রহমান বলেন, এ ঘটনায় কাউকে ছাড় দেয়া হবেনা। ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেফতারে পুলিশ অভিযান চালানো হয়েছে। এলাকার পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। পুলিশ মোতায়েন আছে।

Related posts

Facebook Comments

Default Comments

Leave a Comment