মোকতাদির চৌধুরীর জন্মদিনে মহসিন খন্দকারে দোয়া ও প্রীতিভোজ অনুষ্ঠিত 

স্টাফ রিপোর্টার:

বিনম্র শ্রদ্ধা, ভালোবাসা ও উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যে দিয়ে পালিত হয়েছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অভাবনীয় উন্নয়নের রূপকার, বিশিষ্ট লেখক, মুক্তিযোদ্ধা, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি র.আ.ম. উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এম.পির জন্মদিন।

জন্মদিন উপলক্ষ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার  সুহিলপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য ও চেয়ারম্যান প্রার্থী মহসিন খন্দকার দোয়া ও প্রীতিভোজ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন।

অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামীগের সহ-সভাপতি মুজিবুর রহমান বাবুল, সাংগঠনিক সম্পাদক এড.মাহবুবুল আলম খোকন, সদর উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শামীমা আক্তার, সদর উপজেলা আওয়ামীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম ভূঁইয়া, পৌর আওয়ামীগের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম , জেলা যুবলীগের সভাপতি এড. শাহানুর ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক এড.সিরাজুল ইসলাম ফেরদৌস, সিনিয়র সহ-সভাপতি ইখতিয়ার উদ্দীন স্বপন, সহ-সভাপতি এহসান উল্লাহ মাসুদ, মো: জুগলো, জেলা যুবলীগ নেতা মশিউর রহমান লিটন, জেলা যুব মহিলা সভাপতি রাবেয়া খাতুন, সহ-সভাপতি তাহমিনা আক্তার পান্না, সুহিলপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর কবির খান দুলাল ,সুহিলপুর ইউনিয়ন আওয়ামীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী শাহারুল ইসলাম, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি জিয়াউল আমিন জুয়েল, সাবেক সহ-সভাপতি শামসুজ্জামান পারভেজ চৌধুরী, সদর উপজেলা ছাত্রলীগের কাজী খায়রুল, পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক লিমন আল স্বাধীন, পৌর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি এনামুল হক পারভেজসহ খন্দকার বংশের মুরব্বি ও সুহিলপুর ইউনিয়ের প্রত্যেক ওয়ার্ডের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সহ বিশিষ্ট জনেরা উপস্থিত ছিলেন।

এসময় মোকতাদির চৌধুরীর বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবন নিয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

আলোচনা সভা ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার  সুহিলপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য ও চেয়ারম্যান প্রার্থী মহসিন খন্দকার বলেন , ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অভাবনীয় উন্নয়নের রূপকার র.আ.ম. উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এম.পির বহু গুণে গুণান্বিত। বিরল প্রতিভার অধিকারী ব্যক্তিত্ব। একজন তুখোড় ছাত্রনেতা হিসেবে তিনি পাকিস্তানী শাসনবিরোধী আন্দোলনে অসাধারণ ভূমিকা রাখেন। মুক্তিযুদ্ধে তাঁর বিশেষ অবদান ছিল।তিনি মোকতাদির চৌধুরী এমপির সফলতা ও দীর্ঘায়ু কামনা করেন।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, ‘মোকতাদির চৌধুরী সাংসদ নির্বাচিত হওয়ার পর ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সন্ত্রাস-চাঁদাবাজি বন্ধ করেছেন। আগে মানুষজন নিরাপদে চলাফেরা করতে পারতো না, এখন মানুষ বুক চিতিয়ে রাস্তায় চলতে পারেন। মোকতাদির চৌধুরীর হাত ধরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে এবং হচ্ছে’।

আলোচনা সভা শেষে মোকতাদির চৌধুরীর দীর্ঘায়ু এবং দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনা করে মোনাজাত ও প্রীতিভোজ করা হয়।


Related posts

Facebook Comments

Default Comments

Leave a Comment