কক্ষে প্রবেশ করায় ক্ষেপলেন ইউএনও!

স্টাফ রিপোর্টার:

বিজয়নগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও)
কক্ষে ব্রাহ্মণবাড়িয়া গণপূর্তের চার প্রকৌশলীর প্রবেশ করায় অশোভন আচরনের অভিযোগ উঠেছে।
বৃহস্পতিবার দুপুরে বিজয়নগর ইউএনও’র কার্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। তবে কক্ষে প্রবেশ নিয়ে উভয়পক্ষের পাল্টাপাল্টি অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গণপূর্ত ও ইউএনও’র কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে,  বিজয়নগর উপজেলায় একটি কারগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র (টিটিসি) স্থাপনের উদ্যোগ নিয়েছে। এজন্য বিজয়নগর উপজেলার আগের ইউএনও উপজেলার মির্জাপুর মৌজায় নদীর পাড়ে জায়গা নির্ধারণ করেন। গত সপ্তাহে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় জায়গাটি পরিদর্শন করে গণপূর্ত বিভাগকে দুই দিনের মধ্যে প্রতিবেদন পাঠাতে বলে। গণপূর্ত বিভাগ গত সপ্তাহে উপজেলার মির্জাপুর মৌজার জায়গাটি পরিদর্শন করে টিটিসি নির্মানের উপযোগী নয় বলে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে প্রতিবেদন পাঠান। সম্প্রতি গণপূর্ত বিভাগের পক্ষ থেকে নতুন করে জায়গা নির্ধারণ করতে ইউএনও’র সঙ্গে যোগাযোগ করেন।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা গণপূর্ত বিভাগের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মিজানুর রহমান মজুমদার, উপসহকারী প্রকৌশলী জুয়েল আহমদে, রুহুল আমিন ও আল মামুন বিজয়নগর উপজেলায় যান।

তাঁরা চারজনই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও)  কে এম ইয়াসির আরাফাতের কক্ষে প্রবেশ করেন। সেসময় কক্ষে প্রবেশ নিয়ে ইউএনও’র সঙ্গে চার প্রকৌশলীর কথা কাটাকাটি হয়। সেসময় ইউএনও’র কক্ষে উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মাহমুদুর রহমান উপস্থিত ছিল। তাঁদের চিৎকার শুনে ইউএনও’র কার্যালয়ে অন্যান্য লোকজন জড়ো হন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া গণপূর্তের উপসহকারী প্রকৌশলী আহমদ আল মামুন বলেন, ইউএনও’র কার্যালয়ের বাইরে থাকা অফিস সহকারী ইউএনও’র কাছ থেকে অনুমতি না নিয়েই আমাদের ভেতরে যেতে বলেন। ভেতরে প্রবেশ করতেই ইউএনও কেন কক্ষের ভেতরে ঢুকলাম তা জানতে চান। বিষয়টি নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়েছে। পরে বিষয়টি সমাধান হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এ কে এম ইয়াছির আরাফাত বলেন, ভুল বোঝাবুঝি থেকে একটু সমস্যা হয়েছিল। পরে দুঃখ প্রকাশের মাধ্যমে বিষয়টি সমাধান হয়।

Related posts

Facebook Comments

Default Comments

Leave a Comment