তৃতীয় মেয়াদে শপথ নিলেন মমতা


ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক :

ভারতজুড়ে করোনার টালমাটাল অবস্থা মোকাবেলায় অনেকটা তড়িঘড়ি করেই টানা তৃতীয় মেয়াদে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে আনুষ্ঠানিক শপথ নিয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেস সভানেত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়।

আজ বুধবার (৫ মে) রাজভবনের থ্রোনহলে রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের কাছে স্থানীয় সময় বেলা পৌনে ১২টার দিকে শপথ নেন তৃণমূল সুপ্রিমো। এর আগে বেলা ১১.২০ মিনিটে রাজভবনে পৌঁছালে মুখ্যমন্ত্রীকে দেয়া হয় গার্ড অফ অনার। তাঁর আগমন ঘিরে ফুলে ফুলে বর্ণিল সাজে সাজানো হয় রাজভবনের নবান্ন চত্ত্বর। করোনা আবহের কারণে অত্যন্ত স্বল্প পরিসরে অনুষ্ঠিত হয় এই শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান। শপথানুষ্ঠানে মাত্র ২০-২৫ জন অতিথি যোগদান করেন।

গত দুই মেয়াদের মতো এবারও অনেকটা একচেটিয়া সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে সরকার গঠনের দ্বারপ্রান্তে মমতার তৃণমূল কংগ্রেস। এদিকে শপথ অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথিদের মধ্যে ছিলেন বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু, প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী এবং বিসিসিআই বস তথা ভারতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।

এদিকে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের শপথানুষ্ঠানে যাওয়ার কথা থাকলেও তৃণমূলের বিরুদ্ধে হামলার অভিযোগ তুলে তিনি সেখানে যান নি। অন্যদিকে রাজ্যের সাবেক মূখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের আসার কথা থাকলেও তিনি শেষ পর্যন্ত আসেন নি।

বিরোধী শিবিরের নীতিনির্ধারকগণ ছাড়াও তৃণমূলের বেশকিছু হেভিওয়েট নেতাও এসময় উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া কিংমেকার প্রশান্ত কিশোর (পিকে), ডায়মন্ড হারবার লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, পৌর প্রশাসক ও কোলকাতা বন্দরের বিধায়ক ফিরহাদ হাকিম, দলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়, বিদায়ী মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়, অভিনেতা ও সাংসদ দেব, শতাব্দী রায় এবং সুব্রত বক্সীসহ নব-নির্বাচিত বিধায়কদের একটি প্রতিনিধিদলও সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, গত সোমবারই নতুন সরকার গঠনের লক্ষ্যে রাজ্যপাল ধনকড়ের সঙ্গে দেখা করে মুখ্যমন্ত্রীর ইস্তাফাপত্র জমা দেন মমতা। রাজ্যে নতুন সরকার গঠনের আগের প্রথা মেনেই এই পদত্যাগ করেন তিনি। এর পরই মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে তৃণমূল চেয়ারপার্সনের শপথ নেবার তারিখ ঘোষণা করেন তিনি।

Related posts

Facebook Comments

Default Comments

Leave a Comment