ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ঘূর্ণিঝড়ে ৪ টি গ্রাম লন্ডভন্ড, আহত ৫

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর ও সরাইলের আকস্মিক ঘূর্ণিঝড়ে ৪টি গ্রামের ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। শনিবার (০৬) জুন সকালে সরাইল উপজেলার বুড্ডাপাড়া ও নাসিরনগর উপজেলার সদরের পশ্চিমপাড়া, এবং আশুরাইল বেনীপাড়া, শ্রীঘর গ্রামের উপর দিয়ে কয়েক সেকেন্ড স্থায়ী এ ঝড় বয়ে যায় ।  এতে বেশকিছু ঘরবাড়ি ও গাছপালা ভেঙ্গে পড়ে। এতে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছে স্থানীয়রা। এ বিষয়ে নাসিরনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাজমা আশরাফী জানান, এ ঝড়ে কাঁচা-পাঁকা সহ বেশ কিছু ঘরবাড়ী ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে এবং গাছপালার ব্যপক ক্ষতি হয়েছে। এতে ৫ জন আহত হয়। আমরা ক্ষতিগস্থ গ্রামগুলো পরিদর্শন করছি।

মানবিক আশুগঞ্জ’ সংগঠনের মানবিক কাজ

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আইসোলেশনে থাকা রোগীদের দুপুরের খাবার দিয়েছেন ‘মানবিক আশুগঞ্জ’ নামে একটি সামাজিক সংগঠন। সোমবার (০১ জুন) দুপুরে জেলা সদর হাসপাতালের নার্সিং ইনস্টিটিউটের সামনে ব্রাহ্মণবাড়িয়া ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের তত্বাবধায়ক মো. শওকত হোসেনের কাছে এই খাবার তুলে দেয় সংগঠনটির সভাপতি মো. আলাউদ্দিন ও অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। এসময় উপস্থিত ছিলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ও আইসোলেশন স্টোরের সমন্বয়ক মো. একরামুর রেজা টিপু, ব্রাহ্মণবাড়িয়া টেলিভিশন জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক রিয়াজ উদ্দিন জামি, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সিভিল সার্জন অফিসের আবাসিক চিকিৎসক মাহমুদুল হাসান, মানবিক আশুগঞ্জ সংগঠনের সভাপতি মো. আলাউদ্দিন ও সংগঠনের…

রাস্তায় পড়েছিল মরদেহ, দাফন করলেন কসবা উপজেলা চেয়ারম্যান জীবন!

পরিবার নিয়ে চাঁদপুরে থাকতেন ফার্মেসী দোকানি মো. রাজীব (৩৬)। তার পৈত্রিক নিবাস ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার বায়েক ইউনিয়নের সাগরতলা গ্রামে। তিনি ওই গ্রামের আবু তাহেরের ছেলে। করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে গতকাল শনিবার (৩০ মে) বিকেলে মারা যান তিনি। মরদেহ দাফনের জন্য সাগরতলা গ্রামে নিয়ে আসা হলে গ্রামের লোকজন দাফন কাজে বাধা দেন। পরবর্তীতে গভীর রাতে কসবা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও কসবা উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক রাশেদুল কাউসার ভূইয়া জীবন মরদেহ দাফনের ব্যবস্থা করেন। মৃতের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্ট থাকায় গতকাল শনিবার দুপুরে রাজীবকে চাঁদপুর শহরের এটি হাসপাতালে…

ভারী বৃষ্টিতে ধসে পড়েছে শতবর্ষী নওয়াব বাড়ি!

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর উপজেলার ঐতিহ্যবাহী ‘গোকর্ণ নওয়াব বাড়ির’ সামনে অংশ ধসে পড়েছে। শনিবার (৩০ মে) সকালে ঝড়ো হাওয়া ও ভারী বৃষ্টির কারণে বাড়িটির সামনের দক্ষিণ দিকের পুরো অংশ ধসে পড়ে। দীর্ঘদিন ধরে অযত্নে আর অবহেলায় কালের গর্ভে হারিয়ে যেতে বসেছে এই পুরার্কীতি বাড়িটি। নওয়ার বাড়ির বংশধর সৈয়দ রিয়াজ জানায়, সকালে বাতাসের সাথে ভারী বৃষ্টির কারণে ধসে পড়ে বাড়ির দক্ষিণ দিকের বারান্দাসহ পুরো অংশ। তবে এতে কেউ হতাহত হয়নি। খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাজমা আশরাফী বাড়িটি পরিদর্শন করেন। এসময় স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান প্রভাষক ছোয়াব আহমেদ, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান সৈয়দ নওশাদ উল্লাহ,…

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ১৭ জনের করোনা শনাক্ত

গত ২৪ ঘন্টায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জেলায় আরও ১৭ জন করোনাভাইরাস আক্রান্ত সনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় মোট ১৩১ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে জেলা সিভিল সার্জন একরাম উল্লাহ এই তথ্য নিশ্চিত করে জানান ঢাকা থেকে আসা পিসিআর রিপোর্টে ১৭ জন পজিটিভ এসেছে। তিনি জানান, সদর উপজেলায় ১৫ জন (রাধিকায় একজন, মধ্যপাড়ায় চারজন, সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের একজন, সদর হাসপাতালে একজন, পীরবাড়ির দুইজন, কাজিপাড়া তিনজন, কলেজপাড়ায় একজন, মুন্সেফপাড়ায় একজন, ভাদুঘর একজন), আশুগঞ্জ উপজেলার আলমনগরে একজন ও বিজয়নগর উপজেলার সিংগারবিলে একজন। ইতিমধ্যে জেলায় আক্রান্ত ১৩১ জনের মধ্যে ৫৮ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি…

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার চিকিৎসকদের সুরক্ষায় ছাত্রলীগের ‘ডক্টরস সেফটি চেম্বার’

চিকিৎসকদের সুরক্ষায় ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়েছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ছাত্রলীগ। হাসপাতালে আগত কোনো রোগী বা স্বজনদের মাধ্যমে যেন চিকিৎসকরা করোনাভাইরাসে সংক্রমিত না হন, সেজন্য জেলা সদর হাসপাতালে ‘ডক্টরস সেফটি চেম্বার’ করে দিয়েছে জেলা ছাত্রলীগ। বাক্সের আদলে তৈরি করা চেম্বারটির ভেতরে থাকবেন চিকিৎসক আর বাইরে থাকবেন রোগীরা। হাসপাতালের বহির্বিভাগের সামনেই চেম্বারটি করা হয়েছে। আগামী রোববার (১০ মে) চেম্বারটি আনুষ্ঠানিকভাবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা হবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। ছাত্রলীগ সূত্রে জানা গেছে, স্বচ্ছ কাঁচ এবং স্টিল দিয়ে ডক্টরস সেফটি চেম্বারটি তৈরি করা হয়েছে। এটি তৈরি করতে সময় লেগেছে সাতদিন। এ কাজে ছাত্রলীগকে পৃষ্ঠপোষকতা…

করোনা রোগী শনাক্তের পর থেকেই এলাকা ছাড়া চেয়ারম্যান

করোনাকালে সরকার সাধারণ ছুটি ঘোষণা করলেও সকল জনপ্রতিনিধিসহ সরকারি কর্মকর্তাদের এলাকায় থাকা বাধ্যতামূলক করে দেয়। কিন্তু নেত্রকোনার দলপা ইউনিয়নে করোনা রোগী শনাক্ত হতেই ইউপি চেয়ারম্যান আমিনুর রহমান খান পাঠান ঢাকায় অবস্থান করছেন বলে বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে। এলাকায় গুঞ্জন উঠেছে জনগণের ভোটে বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েও নির্বাচিত হয়েছেন যিনি এমন একজন জনপ্রতিনিধি কী করে দেশের ক্রান্তিকালে এলাকা থেকে দূরে থাকেন।  জানা গেছে, জেলার কেন্দুয়া উপজেলায় প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হওয়ার পর থেকে তিনি এলাকায় নেই। উনার ঢাকাস্থ নিজ বাসায় তিনি অবস্থান করছেন। এদিকে রোগী শনাক্তের পরই ওই ইউনিয়ন ১১ এপ্রিল লকডাউন…

চিন্তার ভাঁজ সরিয়ে কৃষক মিন্টুর মুখে হাসি ফোটালো ছাত্রলীগ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার কায়েমপুর ইউনিয়নের নোয়াগাঁও গ্রামের কৃষক মিন্টু মিয়া চলতি মৌসুমে প্রায় তিন বিঘা জমিতে বিআর-২৮ জাতের ধান চাষ করেছেন। দুই সপ্তাহ আগেই জমির সব ধান পেকে নুয়ে পড়েছে শীষ। কিন্তু চলমান করোনা পরিস্থিতির কারণে ধান কাটার জন্য শ্রমিক পাচ্ছিলেন না। আর তাই সোনালী ধান গোলায় তোলা নিয়ে কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়ে মিন্টু মিয়ার। বৃষ্টি-বাদলের এই দিনে ধানগুলো সব জমিতে পড়েই নষ্ট হওয়ার শঙ্কা ছিল মিন্টু মিয়ার মনে। সেজন্য উপায় না পেয়ে সিদ্ধান্ত নেন স্ত্রী ও চার সন্তান নিয়েই কাটবেন জমির ধান। কিন্তু হঠাৎ করে লোকমুখে শুনতে পান ছাত্রলীগের…

কসবায় হতদরিদ্রদের আইনমন্ত্রীর খাদ্য সহায়তা

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলায় আইনমন্ত্রী আনিসুল হকের নিজস্ব অর্থায়নে হতদরিদ্রদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২৮ এপ্রিল) দুপুর একটার দিকে কসবা উপজেলার কায়েমপুর ইউনিয়নের কায়েমপুর গ্রামের ১৩০টি পরিবারের মাঝে খাদ্যসামগ্রীগুলো বিতরণ করা হয়। খাদ্যসামগ্রীর মধ্যে পাঁচ কেজি চাল, দুই কেজি আটা, আড়াই কেজি আলু, দুই কেজি ছোলা ও এক কেজি বুটের ডাল রয়েছে। কায়েমপুর আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আইনমন্ত্রীর পক্ষে কসবা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রাশেদুল কাউসার ভূইয়া খাদ্যসামগ্রী তুলে দেন। এ সময় কায়েমপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইকতিয়ার আলম রনি, কসবা উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার…

সাংবাদিক সুমনের ফেসবুক স্ট্যাটাসে প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেলেন বাকপ্রতিবন্ধী সেই নারী

সাংবাদিক সুমনের ফেসবুক স্ট্যাটাসে প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেলেন বাকপ্রতিবন্ধী সেই নারী। গতকাল শুক্রবার ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের আলাউদ্দিন খাঁ পৌর মিলনায়তনের চলছিল একটি ত্রাণ বিতরণের কার্যক্রম। এসময় এক মধ্য বয়সের নারী আশপাশে ঘুরাঘুরি করছিলেন৷ চেষ্টা করছিলেন একটি ত্রাণের ব্যাগ পেতে। চোখে মুখে ছিল অসহায়ত্বের ছাপ। কিন্তু ওই ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রমে তালিকা অনুযায়ী ত্রাণের ব্যাগ হাতে তুলে দেওয়া হচ্ছিল৷ ওই নারী অবশেষে হতাশ হয়ে মিলনায়তনের বাইরে চলে যাচ্ছিলেন। বিষয়টি নজরে পরে ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম কাভারেজ আসা এটিএন নিউজের পূর্বাঞ্চলীয় ব্যুরো অফিসের চিত্র সাংবাদিক সুমন রায়ের। মিলনায়তনের বাইরের সেই নারী পেছনে পেছনে দৌড়ে গেলেন। তার…