মহানবী (সা.) এর ব্যাঙ্গচিত্র করা ব্যক্তি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত

২০০৭ সালে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-এর বিকৃত ছবি আঁকা সুইডিশ কার্টুনিস্ট লার্স ভিকস সড়ক দুর্ঘটনায় মারা গেছেন।

১৪ বছর আগে আল-কায়েদা তার মাথার দাম এক লাখ ডলার ধরে তাকে হত্যার আহ্বান জানায়। এর পর থেকে পুলিশের নিরাপত্তায় চলাচল করতেন তিনি।

দ্য গার্ডিয়ান জানিয়েছে, রোববার (৩ অক্টোবর) পুলিশের গাড়িতে সফর করছিলেন লার্স ভিকস। এ সময় সুইডেনের মার্কারিড শহরের কাছে একটি ট্রাকের সঙ্গে সংঘর্ষ ঘটলে ৭১ বছর বয়সী এই কার্টুনিস্ট নিহত হন। গাড়িতে থাকা দুই পুলিশ সদস্যও মারা যান।

সুইডেন পুলিশের প্রধান আন্দ্রেয়ার্ন্স থ্রনবার্গ জানান, নিরাপত্তা দিতে গিয়ে আমাদের দুইজন সহকর্মী ও ওই ব্যক্তি মারা গেছেন।

তদন্তের দায়িত্ব পাওয়া পুলিশ কর্মকর্তা স্টেফান সিনতিয়াস বলেছেন, বিষয়টি আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। দুর্ঘটনার কারণ স্পষ্ট করার চেষ্টা চলছে।

২০০৭ সালের জুনে এক প্রদর্শনীতে হযরত মুহাম্মদ (স.)-এর ব্যাঙ্গচিত্রটি জমা দেন ভিকস। মাসব্যাপী প্রদর্শনী শুরু হওয়ার আগের দিন আয়োজকরা ভিকসের আঁকা ব্যাঙ্গচিত্রটি সরিয়ে ফেলে।

যদিও তা ডেনমার্কের স্থানীয় পত্রিকায় প্রকাশিত হয়। এতে বিশ্বের নানান প্রান্তে থাকা মুসলমানরা ক্ষোভে ফুসে ওঠে। প্রাণনাশের হুমকিও দেয়া হয় ভিকসকে।

২০১০ সালে সু্ইডেনের একটি পত্রিকা আবারও ওই ব্যাঙ্গচিত্রটি প্রকাশ করে। এ সময় ভিকসকে হত্যার ষড়যন্ত্র করার অভিযোগে আয়ারল্যান্ডে দুই তরুণকে আটক করা হয়। একই অভিযোগে ২০১৩ সালে যুক্তরাষ্ট্রে এক নারীকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়। পরের বছর ফ্রান্সের বির্তকিত ম্যাগাজিন শার্লি এবদো তাকে ‘ফ্রিডম অ্যাওয়ার্ড’ প্রদান করে।

Related posts

Facebook Comments

Default Comments

Leave a Comment